বিবৃতি

১৭ জানুয়ারি ২০১৬, রবিবার, ১২:১১

নারায়ণগঞ্জে লোমহর্ষক ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ

গত ১৬ জানুয়ারী দিবাগত রাতে নারায়ণগঞ্জ মহানগরীর দেওভোগ এলাকায় দুটি শিশুসহ একই পরিবারের ৫ জন লোককে দুর্বৃত্তদের গলাকেটে হত্যা করার ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য ও সাবেক এমপি জনাব হামিদুর রহমান আযাদ আজ ১৭ জানুয়ারী প্রদত্ত এক বিবৃতিতে বলেন, “নারায়ণগঞ্জে একই পরিবারের ৫ জন লোককে দুর্বৃত্তদের গলাকেটে হত্যা করার লোমহর্ষক ঘটনার দ্বারাই প্রমাণিত হচ্ছে যে, দেশে আইন-শৃক্সখলা পরিস্থিতির কী সাংঘাতিক অবনতি ঘটেছে।
নারায়ণগঞ্জে একই পরিবারের ৫ জন লোককে গলা কেটে নৃশংসভাবে হত্যার ঘটনার মাধ্যমে মানুষের নৈতিক অধ:পতন ও অবক্ষয়ের এক বাস্তব চিত্রই দেশবাসীর সামনে প্রকাশিত হলো। এ ঘটনা থেকে স্পষ্ট বুঝা যাচ্ছে যে, দেশের মানুষের জানমালের কোন নিরাপত্তা নেই।
সরকার দেশের মানুষের জানমালের নিরাপত্তা বিধানের পরিবর্তে অন্যায়ভাবে আইন-শৃক্সখলা রক্ষাকারী বাহিনীকে দলীয় রাজনৈতিক ¯^ার্থে ব্যবহার করার কারণেই আইন-শৃক্সখলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটেছে। আইন-শৃক্সখলা রক্ষাকারী বাহিনীকে রাজনৈতিক ¯^ার্থে ব্যবহার না করে জনগণের জানমালের নিরাপত্তা বিধানে শতভাগ নিয়োজিত করা উচিত। তাহলে ঘৃণিত সন্ত্রাসী দুর্বৃত্তরা এ ধরনের অপকর্ম করার দুঃসাহস দেখাবে না। শিক্ষা ক্ষেত্রে এবং সামাজিক আচরণে নীতি-নৈতিকতার অনুশীলন ও চর্চা ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি করে গণসচেতনতা সৃষ্টি করতে হবে। আমি নিহতদের রূহের মাগফিরাত কামনা করছি এবং তাদের ¯^জনদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করছি।
নারায়ণগঞ্জে দু’টি শিশুসহ একই পরিবারের ৫জন মানুষকে গলাকেটে হত্যা করার ঘটনার সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ তদন্ত করে দোষী ব্যক্তিদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় এনে কঠোর শাস্তি প্রদান করার জন্য আমি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আহŸান জানাচ্ছি।”