বিবৃতি

২১ জানুয়ারি ২০১৬, বৃহস্পতিবার, ১২:১০

জনাব আমিনুল ইসলামের ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ

বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য, বরিশাল অঞ্চলের আঞ্চলিক পরিচালক ও কেন্দ্রীয় অফিস সেক্রেটারী জনাব আমিনুল ইসলাম আজ ২১ জানুয়ারী সকাল সাড়ে ৯টায় ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহি ........... রাজিউন)। তার বয়স হয়েছিল ৬২ বছর। তিনি গত ২০ জানুয়ারী সকালে হঠাৎ হৃদরোগে ও মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণের কারণে গুরুতরভাবে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয় এবং আজ ২১ জানুয়ারী সকাল সাড়ে ৯টায় ইন্তেকাল করেছেন। তিনি স্ত্রী, ১ পুত্র ও ১ কন্যাসহ বহু আত্মীয়-¯^জন ও গুণগ্রাহী রেখে গিয়েছেন। তিনি বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর সাবেক কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য মরহুম অধ্যাপক মাহমুদ হোসাইন আল মামুনের কনিষ্ঠ ভ্রাতা। তিনি ১৯৫৩ সালের ১৫ মার্চ বরিশাল জেলার মেহেন্দীগঞ্জ উপজেলার উলানিয়ার হাসানপুর গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন।
তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্র বিজ্ঞান বিভাগ থেকে এমএ ডিগ্রী লাভ করেন। তিনি ইসলামী ছাত্র শিবিরের সদস্য ছিলেন। তিনি ঢাকা মহানগরী জামায়াতে ইসলামীর সহকারী সেক্রেটারী ও বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশনের সহ-সভাপতির দায়িত্ব পালন করে গিয়েছেন। তিনি ২০১৩ সালের জানুয়ারী মাস থেকে জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় অফিস সেক্রেটারী হিসেবে কর্মরত ছিলেন। আজ ২১ জানুয়ারী বাদ জোহর ঢাকা মহানগরীর ধানমণ্ডিস্থ ঈদগাহ মসজিদে তার নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।
শোক বাণী

বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য, বরিশাল অঞ্চলের আঞ্চলিক পরিচালক ও কেন্দ্রীয় অফিস সেক্রেটারী জনাব আমিনুল ইসলামের ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত আমীর জনাব মকবুল আহমাদ এবং ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারী জেনারেল ডা. শফিকুর রহমান আজ ২১ জানুয়ারী প্রদত্ত এক যুক্ত শোকবাণীতে বলেন, “জনাব আমিনুল ইসলামের আকস্মিক ইন্তেকালে আমরা আল্লাহর দ্বীনের জন্য নিবেদিত প্রাণ একজন সাথীকে হারালাম।
জনাব আমিনুল ইসলাম ছাত্র জীবন থেকেই ইসলামী আন্দোলনের সাথে জড়িত থেকে আল্লাহর এ জমিনে আল্লাহর দ্বীন প্রতিষ্ঠার জন্য সংগ্রাম করে গিয়েছেন। তিনি তত্ত¡াবধায়ক সরকার প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে দেশের মানুষের ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠার আন্দোলনসহ সকল গণতান্ত্রিক আন্দোলনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে গিয়েছেন। জাতির এক সংকটকালে তার ইন্তেকালে বিরাট ক্ষতি হয়ে গেল। আল্লাহ তার জীবনের সকল নেক আমল কবুল করে তাকে জান্নাতে উচ্চ মর্যাদা প্রদান করুন।
আমরা তার শোক-সন্তপ্ত পরিবার-পরিজনদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়ে দোয়া করছি আল্লাহ তাদের এ শোক সহ্য করার তাওফীক দান করুন।”