সর্বশেষ সংবাদ

২ নভেম্বর ২০১৮, শুক্রবার, ৬:২৮

অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করার ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ

সরকার রাজনৈতিক উদ্দেশ্য চরিতার্থ করার হীন উদ্দেশ্যই জামায়াতে ইসলামী ও ছাত্র শিবিরের নেতা-কর্মীদের অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করছে

গত ১লা নভেম্বর বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর ঠাকুরগাঁও জেলা শাখার আমীর মাওলানা আবদুল হাকিমকে, টাংগাইল জেলার গোপালপুর উপজেলা শাখা জামায়াতের নায়েবে আমীর জনাব রফিকুল ইসলামকে, রাজশাহী জেলার তানোর উপজেলা পরিষদের ভাইস-চেয়ারম্যান ও স্থানীয় জামায়াতের নেতা জনাব আব্দুর রহীমকে এবং নাটোর জেলার লালপুর উপজেলার সদর ইউনিয়ন শাখার সভাপতি জনাব খায়রুল ইসলাম বাশার জুয়েল, দূড়দুড়িয়া ইউনিয়ন শাখা জামায়াতের আমীর জনাব নজরুল ইসলামসহ জামায়াতে ইসলামী ও ইসলামী ছাত্রশিবিরের ৬ জন নেতা-কর্মীকে পুলিশের অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করার ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর নায়েবে আমীর এবং সাবেক এমপি অধ্যাপক মুজিবুর রহমান আজ ২ নভেম্বর প্রদত্ত এক বিবৃতিতে বলেন, “সরকার হীন রাজনৈতিক উদ্দেশ্য চরিতার্থ করার হীন উদ্দেশ্যই সারা দেশে জামায়াতে ইসলামী ও ইসলামী ছাত্র শিবিরের নেতা-কর্মীদের অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করছে। দেশের বিভিন্ন স্থানে জামায়াতে ইসলামী ও ইসলামী ছাত্র শিবিরের নেতা-কর্মীদের পুলিশের অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করার ঘটনার আমি তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

সরকার আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ বিনষ্ট করার যে ষড়যন্ত্র করছে তারই অংশ হিসেবে সারা দেশে জামায়াতে ইসলামী ও ইসলামী ছাত্র শিবিরের নেতা-কর্মীদের অব্যাহতভাবে গ্রেফতার করছে। এ থেকেই জাতির সামনে স্পষ্ট হয়ে গিয়েছে যে, সরকার সকল দলের অংশগ্রহণে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ জাতীয় সংসদ নির্বাচন আদৌ চায় না। বিরোধী দলগুলোকে নির্বাচনের বাইরে রেখে ভোটার বিহীন একতরফা ব্যালট ডাকাতির নির্বাচনের প্রহসনের নাটক মঞ্চস্থ করার জন্যই সরকার সারা দেশে জামায়াতে ইসলামীসহ বিরোধী দলের নেতা-কর্মীদের গ্রেফতার করে জেলে পাঠাচ্ছে। সরকার গোটা দেশকেই একটি জেলখানা বানিয়ে ফেলেছে। অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য সকলের ঐক্যবদ্ধ তীব্র গণ-আন্দোলনের কোন বিকল্প নেই। এ সত্যটি সবাইকে গভীরভাবে উপলব্ধি করতে হবে।

ঠাকুরগাঁও জেলা শাখা জামায়াতের আমীর মাওলানা আবদুল হাকিমসহ সারা দেশে জামায়াতে ইসলামী ও ইসলামী ছাত্রশিবিরসহ বিরোধী দলের গ্রেফতারকৃত সকল নেতা-কর্মীকে অবিলম্বে মুক্তি দেয়ার জন্য আমি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।”